আজ শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন দিন
জাতীয়, আঞ্চলিক, স্থানীয় পত্রিকাসহ অনলাইন পোর্টালে যে কোন ধরনের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন। মেসার্স রুকাইয়া এড ফার্ম -01711 211241

বঙ্গভবনে মহামান্য রাষ্ট্রপতির আয়োজনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তৈয়ব হাসান

  • রিপোর্টার
  • আপডেট সময়: ০৩:৫৮:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪
  • ৪১ বার পড়া হয়েছে

মহামান্য রাষ্ট্রপতির আয়োজনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত হয়ে বঙ্গভবনে গেলেন তৈয়ব হাসান। রাষ্ট্রীয় পুরস্কারে ভূষিত তথা জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত হিসেবে তিনি এ সম্মান অর্জন করলেন। মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গভবনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ভুটানের রাজা, মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, সাংসদবৃন্দ, বিদেশী কুটনীতিকবৃন্দ, উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা ও পরিবারের সদস্যবৃন্দ, রাষ্ট্রীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অতিথিদের সম্মানে বিশেষ অনুষ্ঠানমালাসহ ইফতার ও নৈশভোজে আপ্যায়ন করা হয়। তৈয়ব হাসান দেশের দুই জন রাষ্ট্রীয় পুরস্কারপ্রাপ্তদের ফিফা রেফারী মধ্যে জীবিত একজন হিসেবে প্রথম এসম্মান পেলেন। অপর জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত কিংবদন্তি রেফারী মরহুম জেড আলম।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ১৮ বছর আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফিফা রেফারি হিসেবে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি। তিনিই সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন।দেশের ইতিহাসে প্রথম ও একমাত্র ইন্টারন্যাশনাল রেফারি অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত (এএফসি রেফারীজ মোমেন্তো অ্যাওয়ার্ড) রেফারি তৈয়ব। এশিয়ার সেরা ২৫ রেফারির তালিকায় থাকা তৈয়ব প্রথম সাউথ এশিয়ান রেফারি হিসেবে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ম্যাচে (নেপাল-২০১৩) প্রধান রেফারির দায়িত্ব পালন করেন। রেফারী হিসেবে তিনি সর্বাধিকবার বিদেশে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

ট্যাগস:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

বঙ্গভবনে মহামান্য রাষ্ট্রপতির আয়োজনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তৈয়ব হাসান

আপডেট সময়: ০৩:৫৮:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

মহামান্য রাষ্ট্রপতির আয়োজনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত হয়ে বঙ্গভবনে গেলেন তৈয়ব হাসান। রাষ্ট্রীয় পুরস্কারে ভূষিত তথা জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত হিসেবে তিনি এ সম্মান অর্জন করলেন। মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গভবনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ভুটানের রাজা, মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, সাংসদবৃন্দ, বিদেশী কুটনীতিকবৃন্দ, উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা ও পরিবারের সদস্যবৃন্দ, রাষ্ট্রীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অতিথিদের সম্মানে বিশেষ অনুষ্ঠানমালাসহ ইফতার ও নৈশভোজে আপ্যায়ন করা হয়। তৈয়ব হাসান দেশের দুই জন রাষ্ট্রীয় পুরস্কারপ্রাপ্তদের ফিফা রেফারী মধ্যে জীবিত একজন হিসেবে প্রথম এসম্মান পেলেন। অপর জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত কিংবদন্তি রেফারী মরহুম জেড আলম।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ১৮ বছর আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ফিফা রেফারি হিসেবে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি। তিনিই সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন।দেশের ইতিহাসে প্রথম ও একমাত্র ইন্টারন্যাশনাল রেফারি অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত (এএফসি রেফারীজ মোমেন্তো অ্যাওয়ার্ড) রেফারি তৈয়ব। এশিয়ার সেরা ২৫ রেফারির তালিকায় থাকা তৈয়ব প্রথম সাউথ এশিয়ান রেফারি হিসেবে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ম্যাচে (নেপাল-২০১৩) প্রধান রেফারির দায়িত্ব পালন করেন। রেফারী হিসেবে তিনি সর্বাধিকবার বিদেশে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।