আজ বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন দিন
জাতীয়, আঞ্চলিক, স্থানীয় পত্রিকাসহ অনলাইন পোর্টালে যে কোন ধরনের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন। মেসার্স রুকাইয়া এড ফার্ম -01711 211241

যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হলেও গাজায় হামলা চালাবে ইসরায়েল

  • রিপোর্টার
  • আপডেট সময়: ০৬:৩৮:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • ৩২ বার পড়া হয়েছে

অবশেষে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় জরুরিভিত্তিতে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হয়েছে। তবে ইসরায়েল বলছে, যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হওয়া সত্ত্বেও গাজায় হামলা বন্ধ করবে না তারা। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়। ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী কাটজ এক্স এ দেওয়া এক পোস্টে বলেন, ‘ইসরায়েল যুদ্ধবিরতি করবে না। আমরা হামাসকে ধ্বংস করব এবং সমস্ত বন্দিদের ঘরে ফিরে না আসা পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাব।’ এর আগে গতকাল সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ইসলামিক পবিত্র মাস রমজানে গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে একটি প্রস্তাব পাস করেছে। পবিত্র এই মাসটি মধ্যপ্রাচ্যে গত ১১ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে এবং আগামী ৯ এপ্রিল শেষ হতে পারে।

কাউন্সিলের ১০ জন নির্বাচিত সদস্যের উপস্থাপিত এই রেজুলিউশনের পক্ষে ১৪টি দেশ ভোট দিয়েছে। অন্যদিকে সেখানে একমাত্র দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র ভোটদান থেকে বিরত ছিল। তবে প্রস্তাবটির বিপক্ষে ভেটো ক্ষমতারও প্রয়োগ করেনি পরাশক্তি এই দেশটি। জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের দূত গিলাদ এরদান দাবি করেছেন, জাতিসংঘের এই প্রস্তাব গাজা থেকে ইসরায়েলি বন্দিদের মুক্তি ‘নিশ্চিত করার প্রচেষ্টাকে দুর্বল করবে’। কয়েক মাস ধরা চলা এই সংঘাতের অবসান ঘটাতে একের পর এক আন্তর্জাতিক আহ্বানের পর অবশেষে এই প্রস্তাব পাশ হলো। অক্টোবরের ৭ তারিখ থেকে শুরু হওয়া এই আগ্রাসনে ৩২ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু।

ট্যাগস:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হলেও গাজায় হামলা চালাবে ইসরায়েল

আপডেট সময়: ০৬:৩৮:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

অবশেষে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় জরুরিভিত্তিতে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হয়েছে। তবে ইসরায়েল বলছে, যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হওয়া সত্ত্বেও গাজায় হামলা বন্ধ করবে না তারা। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়। ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী কাটজ এক্স এ দেওয়া এক পোস্টে বলেন, ‘ইসরায়েল যুদ্ধবিরতি করবে না। আমরা হামাসকে ধ্বংস করব এবং সমস্ত বন্দিদের ঘরে ফিরে না আসা পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাব।’ এর আগে গতকাল সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ইসলামিক পবিত্র মাস রমজানে গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে একটি প্রস্তাব পাস করেছে। পবিত্র এই মাসটি মধ্যপ্রাচ্যে গত ১১ মার্চ থেকে শুরু হয়েছে এবং আগামী ৯ এপ্রিল শেষ হতে পারে।

কাউন্সিলের ১০ জন নির্বাচিত সদস্যের উপস্থাপিত এই রেজুলিউশনের পক্ষে ১৪টি দেশ ভোট দিয়েছে। অন্যদিকে সেখানে একমাত্র দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র ভোটদান থেকে বিরত ছিল। তবে প্রস্তাবটির বিপক্ষে ভেটো ক্ষমতারও প্রয়োগ করেনি পরাশক্তি এই দেশটি। জাতিসংঘে নিযুক্ত ইসরায়েলের দূত গিলাদ এরদান দাবি করেছেন, জাতিসংঘের এই প্রস্তাব গাজা থেকে ইসরায়েলি বন্দিদের মুক্তি ‘নিশ্চিত করার প্রচেষ্টাকে দুর্বল করবে’। কয়েক মাস ধরা চলা এই সংঘাতের অবসান ঘটাতে একের পর এক আন্তর্জাতিক আহ্বানের পর অবশেষে এই প্রস্তাব পাশ হলো। অক্টোবরের ৭ তারিখ থেকে শুরু হওয়া এই আগ্রাসনে ৩২ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু।