আজ শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন দিন
জাতীয়, আঞ্চলিক, স্থানীয় পত্রিকাসহ অনলাইন পোর্টালে যে কোন ধরনের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন। মেসার্স রুকাইয়া এড ফার্ম -01711 211241

‘কোটি টাকার’ জমি কিনেছেন প্রশ্নপত্র ফাঁসে গ্রেপ্তার সোহেল

  • রিপোর্টার
  • আপডেট সময়: ১২:২৩:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪
  • ২১ বার পড়া হয়েছে

সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৭ জনের একজন ঢাকার মিরপুরের ব্যবসায়ী আবু সোলেমান মো. সোহেল (৩৫)। তার বাড়ি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার আমড়াতলী ইউনিয়নের বানাশুয়া গ্রামে। গত কয়েক বছরে ‘অস্বাভাবিকভাবে’ অর্থ সম্পদের মালিক হওয়া সোহেলের গ্রেপ্তারের এই খবরে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন গ্রামবাসী। সোহেলের গ্রামের বাড়ি চারপাশে তার পরিবার অনেক জমিজমার মালিক হওয়ার বিষয়টি নিয়েও আগে থেকে কৌতূহলী স্থানীয়রা। সোহেলের বাবা এলাকায় ‘আবদুল ওহাব বিএসসি’ নামে পরিচিত। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে সোহেল সবার ছোট। তার বাবা বর্তমানে আমেরিকায় অবস্থান করছেন।

আমড়াতলী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কাজী মোজাম্মেল হক বলেন, ‘সম্প্রতি সোহেলের পরিবার বাড়ির পাশে দেড় কোটি টাকায় জমি কেনে, এটা সবাই জানে। তারা প্রচুর টাকার মালিক, প্রচুর সম্পদের মালিক। সোহেলের ভাইদের বুড়িচং আর কুমিল্লা শহরে স্বর্ণের দোকান আছে, কিন্তু তাদের দোকান দেখলে বুঝতে পারা যায় না যে এত টাকার মালিক। আর যতটুকু শুনেছি, সোহেল ঢাকায় বড় কারবারি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে তাদের সম্পদের বিষয়ে স্থানীয়দের কাছে যা শুনেছি, তা অস্বাভাবিক।’ ইউপি চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘গত কয়েক বছরে তাদের কাজের কোনো পরিধি নাই, কিন্তু লেনদেনের পরিধি বেশি।’

সোহেলের গ্রেপ্তারের বিষয়ে বানাসুয়া এলাকার ইউপি সদস্য মো. মাইনুদ্দিন বলেন, ‘এমনি তো জানি সে (সোহেল) ভালোই। কিন্তু কাজ কারবার যে অন্য রকম করে, সেটা জানতাম না।’ বানাশুয়া গ্রামের একাধিক বাসিন্দা জানান, বাবার নামেই জমি কিনেছেন সোহেল। এলাকাবাসী খুব বেশি মানুষের সঙ্গে চলাফেরা নেই তাদের। ঢাকা থেকে সোহেল যখন বাড়িতে আসতেন, তখন একা একা চলাফেরা করতেন। কারও সঙ্গে তেমন মেলামেশা করতেন না। এ বিষয়ে সোহেলের পরিবারের বক্তব্য জানতে তার বড় ভাই খালেদ হোসেনের ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ধরেননি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ রেলওয়ের উপসহকারী প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত অভিযোগে পিএসসির দুজন উপপরিচালক, দুজন সহকারী পরিচালকসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গত রোববার ও সোমবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এই ১৭ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে মিরপুরের ব্যবসায়ী আবু সোলায়মান মো. সোহেলসহ সাতজনকে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য মঙ্গলবার আদালতে নেওয়া হয়।

ট্যাগস:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

‘কোটি টাকার’ জমি কিনেছেন প্রশ্নপত্র ফাঁসে গ্রেপ্তার সোহেল

আপডেট সময়: ১২:২৩:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৭ জনের একজন ঢাকার মিরপুরের ব্যবসায়ী আবু সোলেমান মো. সোহেল (৩৫)। তার বাড়ি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার আমড়াতলী ইউনিয়নের বানাশুয়া গ্রামে। গত কয়েক বছরে ‘অস্বাভাবিকভাবে’ অর্থ সম্পদের মালিক হওয়া সোহেলের গ্রেপ্তারের এই খবরে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন গ্রামবাসী। সোহেলের গ্রামের বাড়ি চারপাশে তার পরিবার অনেক জমিজমার মালিক হওয়ার বিষয়টি নিয়েও আগে থেকে কৌতূহলী স্থানীয়রা। সোহেলের বাবা এলাকায় ‘আবদুল ওহাব বিএসসি’ নামে পরিচিত। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে সোহেল সবার ছোট। তার বাবা বর্তমানে আমেরিকায় অবস্থান করছেন।

আমড়াতলী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান কাজী মোজাম্মেল হক বলেন, ‘সম্প্রতি সোহেলের পরিবার বাড়ির পাশে দেড় কোটি টাকায় জমি কেনে, এটা সবাই জানে। তারা প্রচুর টাকার মালিক, প্রচুর সম্পদের মালিক। সোহেলের ভাইদের বুড়িচং আর কুমিল্লা শহরে স্বর্ণের দোকান আছে, কিন্তু তাদের দোকান দেখলে বুঝতে পারা যায় না যে এত টাকার মালিক। আর যতটুকু শুনেছি, সোহেল ঢাকায় বড় কারবারি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে তাদের সম্পদের বিষয়ে স্থানীয়দের কাছে যা শুনেছি, তা অস্বাভাবিক।’ ইউপি চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘গত কয়েক বছরে তাদের কাজের কোনো পরিধি নাই, কিন্তু লেনদেনের পরিধি বেশি।’

সোহেলের গ্রেপ্তারের বিষয়ে বানাসুয়া এলাকার ইউপি সদস্য মো. মাইনুদ্দিন বলেন, ‘এমনি তো জানি সে (সোহেল) ভালোই। কিন্তু কাজ কারবার যে অন্য রকম করে, সেটা জানতাম না।’ বানাশুয়া গ্রামের একাধিক বাসিন্দা জানান, বাবার নামেই জমি কিনেছেন সোহেল। এলাকাবাসী খুব বেশি মানুষের সঙ্গে চলাফেরা নেই তাদের। ঢাকা থেকে সোহেল যখন বাড়িতে আসতেন, তখন একা একা চলাফেরা করতেন। কারও সঙ্গে তেমন মেলামেশা করতেন না। এ বিষয়ে সোহেলের পরিবারের বক্তব্য জানতে তার বড় ভাই খালেদ হোসেনের ব্যবহৃত মোবাইল নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ধরেননি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ রেলওয়ের উপসহকারী প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত অভিযোগে পিএসসির দুজন উপপরিচালক, দুজন সহকারী পরিচালকসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গত রোববার ও সোমবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে এই ১৭ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে মিরপুরের ব্যবসায়ী আবু সোলায়মান মো. সোহেলসহ সাতজনকে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য মঙ্গলবার আদালতে নেওয়া হয়।