আজ রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম:
Logo সাতক্ষীরা থানায় হামলার চেষ্টা, পুলিশের লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি Logo যশোরে ডিবি পুলিশের অভিযানে পিস্তলসহ যুবক আটক Logo মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ Logo সাতক্ষীরায় কোটা বিরোধীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া Logo কোটা বহালে হাইকোর্টের রায় বাতিল চেয়ে লিভ টু আপিল Logo সাতক্ষীরায় কোটা আন্দলনকারী ও ছাত্রলীগ মুখোমুখি অবস্থানে Logo বেনা‌পো‌লে ঘোষণা বহির্ভূত ১৫ হাজার ৭৫০ কেজি সালফিউরিক এসিড জব্দ Logo ‘বাবাকে হত্যা করেছি আমাকে গ্রেপ্তার করুন’ Logo সাতক্ষীরায় দুই রোহিঙ্গা নারীসহ মানব পাচারকারী আটক Logo প্রশ্নফাঁসে জড়িত কুমিল্লার সোহেলের বোন শিক্ষা অফিসার, ভাবি শিক্ষক
বিজ্ঞাপন দিন
জাতীয়, আঞ্চলিক, স্থানীয় পত্রিকাসহ অনলাইন পোর্টালে যে কোন ধরনের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন। মেসার্স রুকাইয়া এড ফার্ম -01711 211241

নেপাল-নেদারল্যান্ডসও ভয়ংকর বার্তা দিল শান্ত-সাকিবদের

  • রিপোর্টার
  • আপডেট সময়: ০২:৪৪:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে

এবারের টি-২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সাথে একই গ্রুপে অবস্থান করছে নেপাল ও নেদারল্যান্ডস। ধারনা করা হচ্ছিল, এই দুটি ম্যাচ বাংলাদেশের জন্য বেশ সহজ হতে যাচ্ছে। তবে সেই ধারণাকে ভুল প্রমাণ করেছে দল দুটি। মঙ্গলবার ডালাসে মুখোমুখি হয়েছিল নেপাল ও নেদারল্যান্ডস। লো স্কোরিং সেই ম্যাচে দল দুটি যেভাবে লড়াই করেছে তাতে কাউকে দূর্বল প্রতিপক্ষ ভাবার কোনো সুযোগ নেই বাংলাদেশের জন্য। ম্যাচের শুরুতেই পুরো ডালাস স্টেডিয়াম প্রায় সবটাই দখল করে নিয়েছিল লাল-নীল জার্সিধারী নেপালীরা। ম্যাচটি ডালাসে হচ্ছে নাকি কীর্তিপুরে বোঝার উপায় ছিল না। এত এত সমর্থন সাথে নিয়ে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেও নেপাল মাত্র ১০৬ রানেই গুটিয়ে যায়। তবে দর্শকদের একেবারে হতাশ করে নি দলটি। মাত্র ১০৬ রানের পুজিঁ নিয়েও যে লড়াই করা যায় তাই যেন দেখিয়ে দিল এশিয়ার দেশটি। ছোট্ট রান তাড়া করতে নেমেই নেদারল্যান্ডসকে হারাতে হয়েছে চারটি উইকেট। খেলতে হয়েছে প্রায় উনিশ ওভার।

দুই দলের এমন লড়াকু মনোভাব সত্যিই প্রশংসনীয়। স্মৃতির পাতায় ফুটে উঠবে এক যুগ আগের বাংলাদেশ দলের খেলা। যখন ছিল না আজকের লিটন সৌম্যর মতো এত প্রতিভাবান ক্রিকেটার ছিল কেবল শুধু জয়ের ক্ষুধা, হার না মানা এক মানসিকতা। যেই দলটা ২০০৭ বিশ্বকাপে পরাশক্তি ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পেয়েছিল জয়। টি-২০ বিশ্বকাপে সেটিই বাংলাদেশের এখনও পর্যন্ত সবথেকে বড় প্রাপ্তি। এবারের বিশ্বকাপে নেপাল ও নেদারল্যান্ডস খুব বড় কোনো নাম নয়। তবে ম্যাচের দিন তারা যেকোনো কিছুই করতে পারে। গত ওয়ানডে বিশ্বকাপে এই নেদারল্যান্ডস এর কাছেই লজ্জার পরাজয় গ্রহন করেছিল বাংলাদেশ। তাই নেদারল্যান্ডস কোনোভাবেই বাংলাদেশের জন্য সহজ প্রতিপক্ষ নয়। এবার সাথে যোগ হলো নেপালের নাম। তাই অনুমিত ভাবেই এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে দিতে হবে কঠিন পরীক্ষা।

নেপাল ও নেদারল্যান্ডস ম্যাচের আগে নেপাল অধিনায়ককে তার কঠিন প্রতিপক্ষ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল, সেখানে নেপাল অধিনায়ক বাংলাদেশের নামই নেয় নি। তাইতো প্রশ্নটা থেকেই যায়, নেপালও কি বাংলাদেশকে কঠিন প্রতিপক্ষ মানছে না? অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সিরিজ হারা এই বাংলাদেশকে কঠিন প্রতিপক্ষ ভাবার তেমন কোনো সুযোগও থাকে না। তাইতো স্পষ্টতই বলা যায়, নেপাল ও নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশের জন্য বেশ কঠিন প্রতিপক্ষ হতে চলেছে।

ট্যাগস:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

সাতক্ষীরা থানায় হামলার চেষ্টা, পুলিশের লাঠিচার্জ ও ফাঁকা গুলি

নেপাল-নেদারল্যান্ডসও ভয়ংকর বার্তা দিল শান্ত-সাকিবদের

আপডেট সময়: ০২:৪৪:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪

এবারের টি-২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সাথে একই গ্রুপে অবস্থান করছে নেপাল ও নেদারল্যান্ডস। ধারনা করা হচ্ছিল, এই দুটি ম্যাচ বাংলাদেশের জন্য বেশ সহজ হতে যাচ্ছে। তবে সেই ধারণাকে ভুল প্রমাণ করেছে দল দুটি। মঙ্গলবার ডালাসে মুখোমুখি হয়েছিল নেপাল ও নেদারল্যান্ডস। লো স্কোরিং সেই ম্যাচে দল দুটি যেভাবে লড়াই করেছে তাতে কাউকে দূর্বল প্রতিপক্ষ ভাবার কোনো সুযোগ নেই বাংলাদেশের জন্য। ম্যাচের শুরুতেই পুরো ডালাস স্টেডিয়াম প্রায় সবটাই দখল করে নিয়েছিল লাল-নীল জার্সিধারী নেপালীরা। ম্যাচটি ডালাসে হচ্ছে নাকি কীর্তিপুরে বোঝার উপায় ছিল না। এত এত সমর্থন সাথে নিয়ে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেও নেপাল মাত্র ১০৬ রানেই গুটিয়ে যায়। তবে দর্শকদের একেবারে হতাশ করে নি দলটি। মাত্র ১০৬ রানের পুজিঁ নিয়েও যে লড়াই করা যায় তাই যেন দেখিয়ে দিল এশিয়ার দেশটি। ছোট্ট রান তাড়া করতে নেমেই নেদারল্যান্ডসকে হারাতে হয়েছে চারটি উইকেট। খেলতে হয়েছে প্রায় উনিশ ওভার।

দুই দলের এমন লড়াকু মনোভাব সত্যিই প্রশংসনীয়। স্মৃতির পাতায় ফুটে উঠবে এক যুগ আগের বাংলাদেশ দলের খেলা। যখন ছিল না আজকের লিটন সৌম্যর মতো এত প্রতিভাবান ক্রিকেটার ছিল কেবল শুধু জয়ের ক্ষুধা, হার না মানা এক মানসিকতা। যেই দলটা ২০০৭ বিশ্বকাপে পরাশক্তি ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পেয়েছিল জয়। টি-২০ বিশ্বকাপে সেটিই বাংলাদেশের এখনও পর্যন্ত সবথেকে বড় প্রাপ্তি। এবারের বিশ্বকাপে নেপাল ও নেদারল্যান্ডস খুব বড় কোনো নাম নয়। তবে ম্যাচের দিন তারা যেকোনো কিছুই করতে পারে। গত ওয়ানডে বিশ্বকাপে এই নেদারল্যান্ডস এর কাছেই লজ্জার পরাজয় গ্রহন করেছিল বাংলাদেশ। তাই নেদারল্যান্ডস কোনোভাবেই বাংলাদেশের জন্য সহজ প্রতিপক্ষ নয়। এবার সাথে যোগ হলো নেপালের নাম। তাই অনুমিত ভাবেই এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে দিতে হবে কঠিন পরীক্ষা।

নেপাল ও নেদারল্যান্ডস ম্যাচের আগে নেপাল অধিনায়ককে তার কঠিন প্রতিপক্ষ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল, সেখানে নেপাল অধিনায়ক বাংলাদেশের নামই নেয় নি। তাইতো প্রশ্নটা থেকেই যায়, নেপালও কি বাংলাদেশকে কঠিন প্রতিপক্ষ মানছে না? অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সিরিজ হারা এই বাংলাদেশকে কঠিন প্রতিপক্ষ ভাবার তেমন কোনো সুযোগও থাকে না। তাইতো স্পষ্টতই বলা যায়, নেপাল ও নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশের জন্য বেশ কঠিন প্রতিপক্ষ হতে চলেছে।