আজ রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞাপন দিন
জাতীয়, আঞ্চলিক, স্থানীয় পত্রিকাসহ অনলাইন পোর্টালে যে কোন ধরনের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন। মেসার্স রুকাইয়া এড ফার্ম -01711 211241

দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজ পরিবর্তনে প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডলকে ভোট দেওয়ার আহবান

  • রিপোর্টার
  • আপডেট সময়: ০৯:২৬:৫০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৪
  • ৩৫ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠেছে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনের মাঠে নতুন মুখ হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডল। প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী পথসভা, মতবিনিময় ও গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন তিনি। ঘোনা ইউনিয়নের সাধারণ ভোটারদের সাথে মতবিনিময়, পথসভা ও কুশল বিনিময়কালে প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডলকে দল মত নির্বিশেষে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আশ^াস দেন। সাধারণ খেটে খাওয়া শ্রম পেশার মানুষেরা জানান, একজন শিক্ষক যেমন তার ছাত্র ছাত্রীদের সুশিক্ষা দিয়ে তাদের জীবকে পরিবর্তন করতে পারে, ঠিক তেমনি দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজব্যবস্থারও পরিবর্তন করতে পারে। তাই, মানুষ গড়ার কারিগর প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডলকে আগামী ২৯ মে ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান তারা। এসময় প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডল সকলের দোয়া, আশীর্বাদ ও সমর্থন প্রত্যাশা করেন।
নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়া নাজমুস সায়াদাত নাঈদ নামের এক শিক্ষার্থী জানান, ‘প্রিয় শিক্ষক প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডল স্যারকে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে আমরা নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। একজন শিক্ষক যখন একটি ছাত্রের জীবনকে বদলে দিতে পারে। তাহলে আমি মনে করি সেই শিক্ষক যদি সমাজ সংস্কারের দায়িত্বে নামে ইনশাল্লাহ সমাজ থেকে অপশক্তি নির্মূল হবে, দুর্নীতি নির্মূল হবে, সাধারণ খেটে-খাওয়া, মেহনতি-শ্রমিক জনতার ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে। তাই আসুন একটিবার মানুষ গড়ার কারিগর সেই শিক্ষককে বিপুল ভোটে জয়ী করে দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজ পরিবর্তনে সহায়তা করি, মানুষকে অধিকার প্রতিষ্ঠা করি।’
এদিকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের আচরণবিধি অনুযায়ী, এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য ও মন্ত্রীরা প্রচার বা কোনো ধরনের নির্বাচনী কাজে অংশ নিতে পারেন না। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে মন্ত্রী-সংসদ সদস্যদের (এমপি) অনেকেই নানাভাবে প্রভাব বিস্তার করেন। সাধারণ ভোটাররা আশঙ্কা করছেন, এবারও এমন ঘটনা ঘটবে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সংশ্লিষ্টদের নজর রাখার প্রতি আহবান জানান উপজেলাবাসী।

ট্যাগস:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজ পরিবর্তনে প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডলকে ভোট দেওয়ার আহবান

আপডেট সময়: ০৯:২৬:৫০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৪

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রচার-প্রচারণায় জমে উঠেছে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনের মাঠে নতুন মুখ হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডল। প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী পথসভা, মতবিনিময় ও গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন তিনি। ঘোনা ইউনিয়নের সাধারণ ভোটারদের সাথে মতবিনিময়, পথসভা ও কুশল বিনিময়কালে প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডলকে দল মত নির্বিশেষে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আশ^াস দেন। সাধারণ খেটে খাওয়া শ্রম পেশার মানুষেরা জানান, একজন শিক্ষক যেমন তার ছাত্র ছাত্রীদের সুশিক্ষা দিয়ে তাদের জীবকে পরিবর্তন করতে পারে, ঠিক তেমনি দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজব্যবস্থারও পরিবর্তন করতে পারে। তাই, মানুষ গড়ার কারিগর প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডলকে আগামী ২৯ মে ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান তারা। এসময় প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডল সকলের দোয়া, আশীর্বাদ ও সমর্থন প্রত্যাশা করেন।
নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়া নাজমুস সায়াদাত নাঈদ নামের এক শিক্ষার্থী জানান, ‘প্রিয় শিক্ষক প্রভাষক সুশান্ত কুমার মন্ডল স্যারকে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে পেতে আমরা নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। একজন শিক্ষক যখন একটি ছাত্রের জীবনকে বদলে দিতে পারে। তাহলে আমি মনে করি সেই শিক্ষক যদি সমাজ সংস্কারের দায়িত্বে নামে ইনশাল্লাহ সমাজ থেকে অপশক্তি নির্মূল হবে, দুর্নীতি নির্মূল হবে, সাধারণ খেটে-খাওয়া, মেহনতি-শ্রমিক জনতার ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে। তাই আসুন একটিবার মানুষ গড়ার কারিগর সেই শিক্ষককে বিপুল ভোটে জয়ী করে দুর্নীতিগ্রস্ত সমাজ পরিবর্তনে সহায়তা করি, মানুষকে অধিকার প্রতিষ্ঠা করি।’
এদিকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের আচরণবিধি অনুযায়ী, এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য ও মন্ত্রীরা প্রচার বা কোনো ধরনের নির্বাচনী কাজে অংশ নিতে পারেন না। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে মন্ত্রী-সংসদ সদস্যদের (এমপি) অনেকেই নানাভাবে প্রভাব বিস্তার করেন। সাধারণ ভোটাররা আশঙ্কা করছেন, এবারও এমন ঘটনা ঘটবে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সংশ্লিষ্টদের নজর রাখার প্রতি আহবান জানান উপজেলাবাসী।